May 2020


আমফানের দাপটে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিস্তীর্ণ এলাকা। এবার সেখানকার জনজীবন স্বাভাবিক করতে সেনার সাহায্য নিল জেলা প্রশাসন ৷ রবিবারই নামখানা ব্লকের ৭টি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় গাছ কাটা সহ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ শুরু করল সেনা ৷আমফানের দাপটে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায় কয়েক হাজার গাছ ভেঙে পড়ে । উপরে পড়ে প্রায় ৪৬ হাজার বিদ্যুতের খুঁটি । আগেই উদ্ধারকাজে নেমেছিল বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী । আমফানের আগে থেকেই সুন্দরবন সহ জেলার বিভিন্ন এলাকায় মোতায়েন ছিল তারা । কিন্তু, ক্ষয়ক্ষতি বেশি হওয়ায় এখনও পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়নি ৷ এই অবস্থায় জনজীবন স্বাভাবিক করতে সেনার সাহায্য নিল দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা প্রশাসন।রবিবার নামখানা ব্লকের ৭টি গ্রাম পঞ্চায়েতে কাজে নামেন জওয়ানরা। গাছ কাটা, ভাঙা বিদ্যুতের খুঁটি সরানো মতো যাবতীয় কাজে হাত লাগান তাঁরা ৷ এদিকে, ঝড়ের পর থেকে নামখানা, হরিপুর, হেনরি আইল্যান্ড, মদনগঞ্জের মতো অধিকাংশ এালাকা আজও বিদ্যুৎহীন। যোগাযোগ ব্যবস্থাও স্বাভাবিক হয়ে ওঠেনি ৷কয়েকদিন আগেই কাকদ্বীপে প্রশাসনিক বৈঠকে যোগ দিতে এসে জেলায় সেনা নামানোর কথা বলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।সেই মতোই আজ সকাল ৭টা থেকে কাজ শুরু করল সেনা। আজ সেনাবাহিনীর সঙ্গে ছিলেন বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর সদস্যরাও । ছিলেন কয়েকজন সিভিক ভলান্টিয়ার ও ব্লক প্রশাসনের কর্মীরা।
একদিকে শিথিল হচ্ছে লকডাউন, আর অন্যদিকে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সংক্রমণের হার। রবিবার অতীত সমস্ত রেকর্ড ভেঙে বাড়ল দেশের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টাতেই আট হাজারেরও বেশি মানুষ করোনার কবলে পড়েছেন।
এদিন স্বাস্থ্যমন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত ৮,৩৮০ জন। শনিবার যে সংখ্যাটা ছিল ৭ হাজার ৯৬৪। যা ছিল সর্বোচ্চ। কিন্তু লকডাউনের চতুর্থ দফার শেষদিনের তথ্য উদ্বেগ বাড়াচ্ছে বইকী। এর ফলে বর্তমানে মোট আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়াল ১ লক্ষ ৮২ হাজার ১৪৩ জনে। যার মধ্যে অ্যাকটিভ কেস ৮৯ হাজার ৯৯৫। এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৮৬ বাজার ৯৮৪ জন। সুস্থতার হার সন্তোষজনক হলেও যেভাবে লাফিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে, তাতে আসন্ন বিপদের অশনি সংকেতই দেখছেন বিশেষজ্ঞরা। শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেন চালু হওয়ার পর থেকেই গোটা দেশে উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে আক্রান্তের সংখ্যা। তার পরেও শনিবার লকডাউনের পঞ্চম দফায় অনেকটাই শিথিলতার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। জানানো হয়েছে শুধুমাত্র কনটেনমেন্ট জোনেই জারি থাকবে লকডাউন। অন্যান্য স্থানে প্রায় সবই খুলে দেওয়া হচ্ছে। ধর্মীয় স্থান থেকে শপিং মল, রেস্তরাঁ, হোটেল- সবেতেই ছাড়। প্রশ্ন উঠছে, এই শিথিলতাই কাল হয়ে দাঁড়াবে না তো?
তবে শুধু আক্রান্তের সংখ্যাই এই প্রশ্ন তুলছে না। সমানত তালে বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড-১৯-এর বলি ১৯৩ জন। দেশে এখনও পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৫,১৬৪ জনের। প্রসঙ্গত, কর্ণাটকের এক বিশেষজ্ঞ জানিয়েছিলেন, মধ্য ডিসেম্বরের মধ্যে ৫০ শতাংশ ভারতীয়ই এই মারণ ভাইরাসের কবলে পড়বেন। জুন থেকে লকডাউন শিথিল হলে সংক্রমণের শিখরে উঠবে দেশ। বাড়তে থাকা আক্রান্তের সংখ্যা গবেষকের এই আশঙ্কাকেই নতুন করে উসকে দিল।
ভারতের পরিস্থিতি যখন দিনের পর দিন উদ্বেগ বাড়াচ্ছে, সেখানে তুলনামূলক নিয়ন্ত্রণে আসছে মার্কিন মুলুক। সেখানে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৯৬০ জনের। একসময় একদিনে সেখানে প্রায় ২৫০০ মানুষও করোনার বলি হয়েছেন। আমেরিকায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ১ লক্ষ ২৭ হাজার ৭৫৮।

*web_sangrohito_news
দেশে ফের বাড়ল লকডাউনের মেয়াদ। তবে কনটেনমেন্ট জোন ছাড়া অন্যত্র লকডাউনের নিয়মকানুন অনেকটাই শিথিল করা হয়েছে। এই মুহূর্তে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা  ১ লক্ষ ৮৩ হাজার ১৪৩। মৃত্যু হয়েছে ৫,১৬৪ জনের। বিশ্বের করোনা পরিসংখ্যানের নিরিখে ভারত এখন নবম স্থানে। এই মুহূর্তে বাংলাতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫,১৩০। মৃত বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৩৭।করোনা সংক্রান্ত সমস্ত আপডেট:বেলা ১১.৪০: জম্মু কাশ্মীরে করোনায় আক্রান্ত এক আমলা।
বেলা ১১.০০: 
শুরু প্রধানমন্ত্রীর ‘মন কি বাত’। প্রধানমন্ত্রীর কথায়, সেবাই প্রধান ধর্ম।

  • অন্য দেশের তুলনায় ভারতে করোনার সংক্রমণ হার ও মৃত্যুহার অনেকটাই কম।
  • সেবা প্রধান ধর্ম। বহু মানুষ নিজের সবকিছু মানুষের সেবা করছেন।
  • সংকটের সময় দেশবাসী নতুন নতুন আবিষ্কার করছেন। 
  • গোটা পরিস্থিতির সবচেয়ে মারাত্মক প্রভাব পড়েছে পরিযায়ী শ্রমিকদের উপর। গোটা দেশ তাঁদের কষ্ট দেখে কাঁদছে। 
  • আয়ুর্বেদ ও যোগাভ্যাস করছে গোটা বিশ্ব। আয়ুশ মন্ত্রকের তরফে ‘মাই লাইফ, মাই যোগ’ চালু করেছে। এই অনলাইন প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন সকলে। বিশ্বনেতারা এ বিষয়ে যোগাভ্যাস 
  • আয়ুষ্মান ভারত গরীব মানুষের অর্থ বাঁচিয়েছে। 
  • আমফানে বিধ্বস্ত বাংলা ও ওড়িশা। চাষিদের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। দুই রাজ্যের মানুষের সাহসিকতার প্রশংসা।
বেলা ১০.৪৫: মুর্শিদাবাদে রবিবার নতুন করে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১১।
সকাল ১০.০০ : দিল্লিতে আরও এক পুলিশ কর্মী র মৃত্যু।
সকাল ৯.৪০: দেশে একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা দশ হাজার ছুঁইছুঁই। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে সংক্রমিত হলেন ৮,৩৮০ জন। ফলে দেশে করোনা পজিটিভের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১,৮৩,১৪৩ জন। একই সময় দেশে মৃত্যু হয়েছে ১৯৩ জনের। ফলে দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৫ হাজার ১৬৪ জন।
সকাল ৮.৪৫: দক্ষিণ দিনাজপুরে নতুন করে ৯ জন করোনা পজিটিভ। বালুরঘাট ১, হরিরামপুর ৮ জন। এ জেলায় সব মিলিয়ে করোনা পজিটিভ ১৬ জন। 
সকাল ৮.২৩: 
আজ প্রধানমন্ত্রী মন কি বাত। লকডাউন৫.০ নিয়ে দিতে পারেন বার্তা।
সকাল ৮.২০: কর্ণাটকের স্বাস্থ্যকর্মীদের অবসর নেওয়ার সময়ের মেয়াদ আরও এক মাস বাড়ানো  হল।
সকাল ৮.১৫: 
আমেরিকায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৯৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে সে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১৭ লক্ষ ৭০ হাজার ছুঁইছুঁই। মৃত্যু হয়েছে  ১ লক্ষ ৩ হাজার  ৭৬৮ জন।
সকাল ৮.০০: আজ চতুর্থ লকডাউনের শেষ দিন।ইতিমধ্যে লকডাুউনের মেয়াদ বাড়ানোর কথা ঘোষণা করেছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। লকডাউন ৫.০’র নয়া নিয়মকানুনও ঘোষণা করা হয়েছে।

বাসে যত আসন, তত যাত্রী, দাঁড়িয়ে যাওয়া চলবে না', আর কী কী নির্দেশিকা ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর? দেখুন



কাকদ্বীপ  আশা পরিযায়ী শ্রমিক দের দেহে মিললো করোনা ভাইরাস (covid  19) 
• কাকদ্বীপ 1 জন 
• পাথরপ্রতিমা 2জন 
#গুজবে_কান_দেবেন_না 
#বাড়িতে_থাকুন_সুস্থ_থাকুন


দক্ষিণ 24 পরগনার সাগরদ্বীপের ছোট্ট মেয়ে সঞ্চিতা পাত্র যে একজন থ্যালাসেমিয়া রোগী ।
গত 27-5-2020 তারিখে খুব সিরিয়াস অবস্থায় কাকদ্বীপ হসপিটালে এডমিট হয় এবং খুব আর্জেন্ট o+ গ্রুপের রক্তের প্রয়োজন হয় . তার বাবা-মা দিশেহারা হয়ে কাকদ্বীপ থানায় আসে এবং কাকদ্বীপ থানার IC Mr. Sudip Singha এর কাছে সবকিছু জানায়।
যখন ASI Mr. Swakat Ali Sanpui খবরটি জানতে পারেন তখন উনি জানান ওনার ব্লাড গ্রুপ O+ এবং সাথে সাথে কাকদ্বীপ থানার IC Mr. Sudip Singha কাকদ্বীপ Hospital সুপারের সাথে কথা বলে সঞ্চিতার রক্তের প্রয়োজন মেটানোর ব্যবস্থা করে দেন এবংআজ ছোট্ট সঞ্চিতা সম্পূর্ণ সুস্থ এবং সম্পূর্ণ বিপদমুক্ত । #Thank_You_Sir





২৬.৫.২০২০ তারিখ সুন্দরবন পুলিশ জেলার সহযোগিতায় সোনারপুরের লিভার ফাউন্ডেশন গোবর্ধনপুর কোস্টাল থানার অধীনে সীতারামপুর জি প্লট মিলন বিদ্যানিকেতন এবং কাকদ্বীপ থানার অধীনে নারায়ণপুর লক্ষ্মীনারায়ণ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে কমিউনিটি কিচেন শুরু করে। ৩০ দিনের কর্মসূচিতে দৈনিক ১০০০ দরিদ্র / আম্ফান আক্রান্ত ব্যক্তিদের উভয় কমিউনিটি কিচেনের কাছ থেকে রান্না করা খাবার পরিবেশন করা হবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সুন্দরবন বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী  শ্রী মন্টুরাম পাখিরা, সুন্দরবন পুলিশ জেলার পুলিশ সুপার শ্রী বৈভব তিওয়ারি, আইপিএস, বিশিষ্ট চিকিৎসক ও সমাজকর্মী ডঃ অভিজিৎ চৌধুরী, সচিব ও প্রতিষ্ঠাতা, লিভার ফাউন্ডেশন, ডাঃ সুজয় ঘোষ, কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ও লিভার ফাউন্ডেশনের পরিচালক ডাঃ পার্থ সারথি মুখার্জি, সুন্দরবন পুলিশ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেড কোয়ার্টার) শ্রী রাকেশ সিং, সুন্দরবন পুলিশ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (জোনাল) শ্রী সন্তোষ কুমার মন্ডল, এসডিপিও, কাকদ্বীপ শ্রী অনিল কুমার রায়, এসডিও কাকদ্বীপ, শ্রী সৌভিক চ্যাটার্জী,  বিডিও, নামখানা, বিশিষ্ট অভিনেতা শ্রীদেবশঙ্কর হালদার, কাকদ্বীপ থানার আইসি শ্রী সুদীপ সিং, সিআই, কাকদ্বীপ শ্রী শুভব্রত ঘোষ, নারায়ণপুরে অংশ নিয়েছিলেন। এসডিপিও, কাকদ্বীপ, গোবর্ধনপুর কোস্টাল থানার ভারপ্রাপ্ত আধীকারিক শ্রী বরুন শেঠ, এবং সমস্ত লিভার ফাউন্ডেশনের ডাক্তার এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিরা জিপ্লটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নেন। সুন্দরবন জেলা পুলিশ সমর্থিত লিভার ফাউন্ডেশন, সোনারপুরের এই পদক্ষেপের সমস্ত ক্যাটগরির লোকেরা অত্যন্ত প্রশংসা করেছেন।

26.5.20 Liver Foundation of Sonarpur in Association with Sundarban Police District started community kichen at Narayanpur Laxminarayan Madhyamik Vidyalaya under Kakdwip PS and  Sitarampur G plot Milan Vidyaniketan under Gobardhanpur Coastal PS. In the 30 day's programme daily 1000 poor/ Amphan affected people will be served  crooked food from both the community kichen.  Today in the inaugural programme  Sri Manturam Pakhira,  MOS, Sundarban affairs, Sri Vaibhav Tiwari, IPS, SP, Sundarban PD, eminent doctor and social worker Dr Abhijit chowdhury,  Secretary and founder,  Liver Foundation,  Dr Sujay Ghosh,  Astt Professor of SSKM Hospital,  Kolkata,  Partha Sarathi Mukherjee, Director,  Liver Foundation, Sri Rakesh Singh,Addl SP, HQ, Sundarban PD,  Sri Santosh Kr Mondal,  Addl SP, Zonal, Sundarban PD,  Sri Anil Kumar Roy,  SDPO, Kakdwip, Sri Souvik Chatterjee,  SDO, Kakdwip,  BDO, Namkhana, eminent actor  Sri Debshankar Halder, Sudip Singh,  IC, Kakdwip PS,  Sri Subhabrata Ghosh,  CI, Kakdwip attended at Narayanpur.SDPO, Kakdwip, Sri Barun Seth,  OC, Gobardhanpur Coastal PS and all the said doctors and dignitaries of Liver Foundation attended the inaugural programme at Gplot. People of all catagory highly appreciated this steps of Liver Foundation,  Sonarpur supported by Sundarban District Police.
........................................................................




আজ থেকে শুরু হলো নামখানায় কমিউনিটি কিচেন by : Liver Foundation
কাকদ্বীপ থানা ও সুন্দরবন জেলা পুলিশের সহযোগিতায় আজ থেকে নামখানা নারায়ণপুর লক্ষীনারায়ন মাধ্যমিক বিদ্যাপীঠ (হাইস্কুল) -এ । প্রত্যহ প্রায় ১০০০ জন মানুষের জন্য খাবারের ব্যবস্থা থাকছে। 
উক্ত উদ্যোগের শুভারম্ভে উপস্থিত ছিলেন :
Mr. Vaibhab Tiwari - S.P.
Mr. Santosh Mondal - Add. S.P.
Mr. Rakesh Singh - Add. S.P. Head Quarter
Mr. Souvik Chattapadhhayay - S.D.O
Mr. Anil kumar Roy - S.D.P.O. Kakdwip
Mr. Rajib Anand - B.D.O Namkhana
Mr. Sudip Singh - I.C.
Dr. Abhijit Chowdhry - Secretary of W.B. liver Foundation
Dr. Partha Mukharjee - Director of W.B. liver Foundation
Dr. Sujoy Ghosh - liver Foundation
Mr. Debprasad Halder (Famous theater artist in Bengal)

🎦| Video Link | 🎦


গতকালের কিছু মুহূর্ত 
কাকদ্বীপে এলেন  মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
#বাংলা_হারতে_পারেনা..
📸 Satinath Patra 
     

শেষ হয়ে যাওয়া সুন্দরবনের কিছু এলাকার বিক্ষিপ্ত ছবি ।

এগিয়ে আসুন, আমরা সবাই মিলে যায় বিপদ থেকে উৎরাই ।

ঘোড়ামারা
কাকদ্বীপ
কাকদ্বীপ
ঘোড়ামারা

বকখালী