দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার গঙ্গাসাগরের রুদ্রনগরে বিডিও অফিসের সামনে সাগরের মহিলা মোর্চার ডাকে এক বিরাট জনসভার আয়োজন করা হয়েছিল। ওই জনসভার প্রধান বক্তা ছিলেন - অগ্নিমিত্রা পল (বিজেপির রাজ্য মহিলা মোর্চার সভানেত্রী)। ওইদিনের জনসভায় গঙ্গাসাগরের কয়েক হাজার বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা ওই মিছিলে জমায়েত করেছিলেন।
ওই বিরাট জনসভায় দাঁড়িয়ে অগ্নিমিত্রা পল বলেন বর্তমান রাজ্য সকারের বিদায় ঘণ্টা বেজে গেছে। আর তাঁর বক্তব্য কয়েক মাস পরে পশ্চিমবঙ্গে ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির ক্ষমতায় আসছে। তিনি আরো বলেন যে এই রাজ্যের সরকারি হাসপাতাল গুলির স্বাস্থ্য পরিষেবার বেহাল দশা। তাঁর বক্তব্য হাসপাতালে পর্যাপ্ত ডক্টর নেই ও পর্যাপ্ত বেড নেই তাই রোগীরা বিনা চিকিৎসায় জন্য মারা যাচ্ছে।
এই রাজ্যে মহিলারা সুরক্ষিত নেই, এই দিনের সভামঞ্চ থেকে অগ্নিমিত্রা পল সাগরের মুড়িগঙ্গা ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের চকফুলডুবি গ্রামের তামেনা বিবিকে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় দোষীদের কঠোর শাস্তি দেবার দাবি তোলেন, ওই সভা মঞ্চে মৃত তামেনা বিবির দুই বছর ছয়মাসের বাচ্চাকে নিয়ে তামেনা বিবির বাবা উপস্থিত ছিলেন।
তিনি আরো বলেন বাংলা যুবক যুবতীরা পরীক্ষা দিচ্ছে কিন্তুু তারা চাকরি পাচ্ছে না আর এই নিয়ে যদি তারা প্রতিবাদ করে তাহলে ওইসব প্রতিবাদীদের রাজ্যের পুলিশ কে ব্যবহার করে তাদেরকে টেনে-হিঁচড়ে গ্রেফতার করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।তিনি ওইদিনের ওই সভামঞ্চ থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সহ সাগরের বিধায়ক বঙ্কিমচন্দ্র হাজরা কেও কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন তিনি বলেন তৃণমূল পার্টি নাকি পরিবারতন্ত্রে পরিণত হয়েছে।
অগ্নিমিত্রা পালের দাবি রাজ্যসরকারের শীর্ষ নেতানেত্রীরা সাধারণ মানুষের কথা একবারও ভাবেনি, তাই সাধারণ মানুষ এখন বুঝতে পেরেছে এই জন্য শাসক দলের ওপর ভরসা না করতে পেরে প্রচুর সংখ্যক তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী সমর্থকরা বিজেপিতে যোগ দিতে শুরু করে দিয়েছে। তিনি আরো বলেন তৃণমূল কংগ্রেস মিথ্যা কেশ দিয়ে বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের দমাতে পারবে না। আরকয়েক মাসের অপেক্ষা ২০২১ সালে বিজেপি এই রাজ্যে ক্ষমতায় আসতে চলেছে বলে তাঁর দাবি।
Share To:

kakdwip.com

Post A Comment:

0 comments so far,add yours